এবার জায়েদ-মাহি প্রেমের গুঞ্জন - OEBD | বিস্তারিত ভিতরে এবার জায়েদ-মাহি প্রেমের গুঞ্জন - OEBD | বিস্তারিত ভিতরে

এবার জায়েদ-মাহি প্রেমের গুঞ্জন

124

এফডিসির শিল্পী সমিতির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান। তার সাথে বেশ কিছু নায়িকাকে জড়িয়ে মশলাদার খবর ছড়িয়ে পড়েছিল। এবার চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সাথে তার প্রেম ডালপালা মেলছে এমন গুঞ্জন ছড়িয়েছে। তবে এসব গুঞ্জন উপভোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। এ প্রসঙ্গে গণমাধ্যমের কাছে জায়েদ খান জানান মাহির সাথে তার অন্যকোন সম্পর্ক নেই। তারা ভালো বন্ধু।

জায়েদ খান বলেন, ‘মানুষ কি কোথাও একসাথে যেতে পারে না? মাহি আমার ভালো বন্ধু, তার হাজবেন্ড আছে। একজন বিবাহিত মেয়েকে নিয়ে কীভাবে এসব ছড়ায় মানুষ আমি ঠিক বুঝতে পারি না। তার বিষয়ে কথা বলার কিছু দেখি না। অবশ্য এসব বিষয় আমার কাছে খুব স্বাভাবিক লাগে। কেননা বিভিন্ন সময় বিভিন্নজনের সাথে আমার নাম জড়ানো হয়েছে।’

কার কার সাথে তার নাম জড়ানো হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে জায়েদ বলেন, এর আগে পপির সাথে আমার নাম জড়ানো হয়েছে। পপি নাকি আমার প্রেমিকা। পরিমনির সাথেও আমার নাম ছড়ানো হয়েছে। এটা শুরু হয়েছে ফারুক ভাইয়ের সময় থেকে। ফারুক ভাইয়ের নির্বাচনী প্রচার থেকে। যার সাথে একটু ভালো কাজ করি তার সাথেই গুঞ্জন ছড়ানো হয়।’

তবে এসব গুঞ্জন উপভোগ করেন জানিয়ে জায়েদ খান বলেন, এগুলো নিয়ে এখন আর মাথা ঘামাই না। আমি বিয়ে করি নি, ব্যাচেলর তো তাই এসব ছড়ানো হয়। আসলেই আমি এইসব গুঞ্জনকে উপভোগ করি। আমি আপনার সাথে কথা বলেছি আমার কি ঠোঁট কেঁপেছে? আমি মিথ্যা বলি না। তাই এসব বিষয়কে পাত্তা দিই না।

কাকরাইলের অফিস থেকে ট্রাক ভরে টাকা সরিয়েছেন আলোচিত সম্রাট!

ঢাকা মহানগর দক্ষিণে যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের কাকরাইলের অফিস থেকে এক হাজার ১৬০ পিস ইয়াবা এবং ইয়াবা সংরক্ষণের আড়াই হাজার জিপার প্যাকেট উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, ভবন থেকে অনেক জিনিস সরিয়ে ফেলার আলামত পাওয়া গেছে। এই অফিস থেকে ট্রাকভর্তি টাকা সরানো হয়েছে বলেও গুঞ্জন রয়েছে।

কাকরাইলের দুজন ব্যবসায়ী বলেন, অনেক রাত পর্যন্ত ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে গাড়ি আসা-যাওয়া করত। এর মধ্যে পিকআপও দেখা যায়। ২২ সেপ্টেম্বরের পর ভবনটি নীরব হয়ে যায়।

এদিকে ২০ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে দুই পিকআপ ভর্তি টাকা চট্টগ্রামের দিকে গেছে বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। গোয়েন্দারা এ ব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছেন। তদন্তকারীদের কয়েকজনের ধারণা, সেখান থেকে অনেক টাকা সরিয়েছেন সম্রাট। সম্রাটকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করার সুযোগ পেলে এসব জানতে চাওয়া হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *